চুয়াডাঙ্গায় যু্‌বককে শিকলে বেঁধে বিড়ির ছ্যাঁকা


চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি প্রকাশের সময় : জুন ২০, ২০২৪, ৪:৫৫ অপরাহ্ন /
চুয়াডাঙ্গায় যু্‌বককে শিকলে বেঁধে বিড়ির ছ্যাঁকা

চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানার রাঙিয়ারপোতা গ্রামে যুবককে ডেকে নিয়ে গিয়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাতভর মারপিট ও বিড়ির আগুন দিয়ে গায়ে ছ্যাঁকা দেয়া সহ মধ্যেযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৭ জুন) ঈদের দিন রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরদিন মঙ্গলবার আহত যুবককে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত যুবকের মা আলেয়া বেগম ও গ্রামবাসী জানান- গত ৬ বছর আগে দর্শনা আকন্দবাড়িয়া গ্রামের আবাসন এলাকার রবিউল হকের ছেলে রনি আহম্মদ (২২) এর সঙ্গে একই গ্রামের বাড়ির নজু মিয়ার মেয়ে প্রেমা খাতুনের (১৮) বিবাহ হয়। গত দু’মাস আগে তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে মেয়েটি তার দুলাভাইয়ের বাড়ি রাঙিয়ারপোতায় চলে যায়। ঈদের রাতে রনি আহম্মেদকে তার তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী প্রেমা খাতুন ও তার দুলাভাই সোনা মিয়া সহ বেশ কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। রনি আহম্মদ যাওয়ার পরপরই তাকে ধরে শিকল দিয়ে বেঁধে মারপিট, বিড়ির আগুনের ছ্যাঁকা ও গোপনাঙ্গ চটকিয়ে মারাত্মক আহত করার অভিযোগ ওঠে। তার চিৎকারে এলাকাবাসী রনি আহম্মেদের বাড়ি খবর দিলে আত্মীয়-স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা জানান- ঘটনাটি শুনেছি, তবে এখনো কেউ থানায় অভিযোগ বা মামলা করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।