1. admin@odhikarkantho.com : admin :
  2. carr@g.1000welectricscooter.com : aimeeaguirre03 :
  3. margarite@i.shavers.skin : ameethorby34121 :
  4. lyssa@g.makeup.blue : christenamcclint :
  5. adrian9@seo0.s3.lolekemail.net : ivapetherick4 :
  6. latonel@sengined.com : latonel :
  7. wpalexand@jordansportsoutlet.com : majork48587252 :
  8. alec@c.razore100.fans : meredith23c :
  9. clint@g.1000welectricscooter.com : mikejgp7618679 :
  10. oralia@b.thailandmovers.com : milov82523130 :
  11. malinde@b.roofvent.xyz : roseannebolinger :
  12. adorne@g.makeup.blue : soljoyce58 :
  13. briny@b.loanme.loan : taylormccrea10 :
  14. test17634324@email.imailfree.cc : test17634324 :
  15. xavipar@sengined.com : xavipar :
  16. foo-bar@example.com : ZAP :
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
" aria-hidden="true"> ফেনীতে বাস-কাভার্ড ভ্যান সংঘর্ষ : প্রাণ গেল ৪ জনের " aria-hidden="true"> ব্র্যাকের প্রধান কার্যালয়ে চাকরি, থাকছে দারুণ সুযোগ সুবিধা " aria-hidden="true"> কর্ণফুলীর তীরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে অনশন " aria-hidden="true"> চট্টগ্রাম বন্দরে আমদানি-রপ্তানি নিম্নমুখী " aria-hidden="true"> নড়াইলে স্ত্রী হত্যা : আদালতে স্বামীর স্বীকারোক্তি " aria-hidden="true"> চসিকের নতুন ডাম্পিং স্টেশন স্থাপনে উদ্যোগ " aria-hidden="true"> সেবক হয়ে জনগণের কাজ করতে চাই -একরামুল হক " aria-hidden="true"> শিক্ষা কর্মকর্তার স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার " aria-hidden="true"> প্রেস কাউন্সিলের ক্ষমতা বৃদ্ধির কাজ চলছে : হাছান মাহমুদ " aria-hidden="true"> ট্রায়াল চলছে মেট্রোরেলের,ডিসেম্বরে যাত্রা শুরু

কোটিপতি পাত্রী জান্নাত এখন পুলিশের খাঁচায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, অধিকার কণ্ঠ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৬১ বার পড়া হয়েছে
জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন পত্রিকায় লোভনীয় বিজ্ঞাপন দেয়া হতো- পাত্র চাই। বেকার, অল্প শিক্ষিত বা ২য় বিয়ে হলেও চলবে। পাত্রী অতি সুন্দনী, উচ্চ শিক্ষিত, কানাডা প্রবাসী অঢেল টাকা আর বিভিন্ন শিল্প-কারখানার মালিক। কানাডা প্রবাসী শর্ট ডিভোর্সি অথচ নিঃসন্তান সুন্দরী নারীকে বিয়ে করে বিদেশে আয়েশি জীবনের লোভ সামলানো মুশকিল বৈকি! ফলে খুব সহজেই শিকার ধরাশায়ী করতেন জান্নাত ও তার সহযোগীরা। এরপর ফাঁদে ফেলে হাতিয়ে নিতেন কোটি কোটি টাকা। এভাবে জান্নাত অন্তত ২০ কোটি টাকার সম্পদ গড়েছেন।

তবে প্রতারণার শিকার একজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ প্রতারক চক্র এখন পুলিশের খাঁচায়। প্রতারণার অভিযোগে জান্নাতসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশন (সিআইডি)। মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন সিআইডির মিডিয়া কর্মকর্তা সিনিয়র এসপি জিসানুল হক।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সাদিয়া জান্নাত ওরফে জান্নাতুল, জান্নাতের দ্বিতীয় স্বামী হাসান ওরফে জিহাদ, সিরাজুল ইসলাম ওরফে সিরাজ, ফিরোজ মিয়া ও তামান্না।

সিনিয়র এসপি জিসান জানান, বিভিন্ন পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে বিয়ের নামে প্রতারণার অভিযোগে জান্নাত নামের এক নারী ও তার স্বামী এবং তিন সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসএসসি পাস করতে না পারা জান্নাত প্রতারণায় পিএইচডি। এ পর্যন্ত প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ২০ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়েছেন তিনি। প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করা স্বামীকে নিয়ে নামেন এই প্রতারণায়।

তিনি জানান, চলতি বছরের আগস্ট মাসে একটি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী কানাডার নাগরিক, ডিভোর্সি সন্তানহীন, নামাজি পাত্রীর জন্য ব্যবসার দায়িত্ব নিতে আগ্রহী বয়স্ক পাত্র চেয়ে একটি বিজ্ঞাপন দেয়া হয়। আগ্রহীদের একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে বারিধারার একটি বাড়িতে যোগাযোগ করতে বলা হয়। পরে সিআইডির কাছে অভিযোগ দেয়া ভুক্তভোগী নাজির হোসেন ওই বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করা মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করেন। পরে তার সঙ্গে গুলশানের একটি রেস্টুরেন্টে দেখা করেন জান্নাত। এ সময় ভুক্তভোগী নাজির দেড় লাখ টাকা ও পাসপোর্ট তুলে দেন জান্নাতের হাতে।

পরে জান্নাত নাজির হোসেনকে জানান, তিনি নিজেই পাত্রী। কানাডায় দুইশ কোটি টাকার ব্যবসা আছে। কিন্তু বর্তমানে কানাডায় অনেক শীত থাকায় নাজির হোসেনকে নেয়া যাচ্ছে না। এরপর দেশে ব্যবসার জন্য কানাডা থেকে টাকা আনার কথা বলে ট্যাক্স, ভ্যাট, ডিএইচএল বিল ইত্যাদি খরচের কথা বলে এক কোটি ৭৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। জান্নাত এরপর মোবাইল বন্ধ করে দেন। নাজিরের সঙ্গে যোগাযোগও বন্ধ করে দেন। পরে ভুক্তভোগী নাজির হোসেন এ বিষয়ে সিআইডিতে অভিযোগ করেন।

একইভাবে অন্য একজন ভুক্তভোগীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় প্রথমে জান্নাতকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি।

পরে জান্নাতের কাছ থেকে তিনজন ভুক্তভোগীর পাসপোর্ট, ১০টি মোবাইল ফোন, তিনটি মেমোরি কার্ড, সাতটি সিল, অসংখ্য সিম, প্রতারণার শিকার হওয়া ভুক্তভোগীদের হিসাবের খাতা ও ব্যাংক এশিয়ায় ৪৮ লাখ টাকা জমা দেয়ার স্লিপ উদ্ধার করা হয়।

সিআইডির এই কর্মকর্তা জানান, উদ্ধার করা খাতায় বিগত দিনের প্রতারণার হিসাব ও ভুক্তভোগীদের নাম-ঠিকানা পাওয়া যায়। জান্নাতের নেতৃত্বে এই চক্রটি গত ১০ বছর ধরে এমন প্রতারণা করে আসছেন। এখন পর্যন্ত সিআইডি তাদের ২০ কোটি টাকার সম্পত্তির সন্ধান পেয়েছে।

জান্নাত নিজে কোনো দিন কানাডা না গেলেও কথাবার্তা ও পোশাক আশাক দেখিয়ে মানুষকে তিনি বিভ্রান্ত করে থাকেন। তাদের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় প্রতারণা ও পাসপোর্ট জালিয়াতি আইনে মামলা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত ©
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD